ধন্য স্বপ্ন।

ঘুম থেকে উঠে মনটা ফুরফুরে ছিল অলীকের। বড় একটা মাছ ধরার স্বপ্ন দেখেছে আজ সে। তাও আবার বড় কাতলা। বেশ তাজা মাঝ নদী থেকে ধরা।  স্বপ্নের আর দোষ কি সারাটাদিন শুধুই মাছের বাজারের মাঝে থাকলে মাছ বাদে অন্যকিছুর স্বপ্ন আসবেনা স্বাভাবিক।  তাই আজ সকালে অলীক বেশ আমেজ করেই চা খেয়ে বেরিয়েছে মাসকাবারি বাজার করতে, অবশ্য এটাকে মাসকাবারি না বলে সপ্তাহকাবারি বলাই ভাল।  এই যেমন দু-কেজি চাল, হাফ কিলো মুগ ডাল, সাথে নানান সাংসারিক বায়নাক্কা।  বেরোনোর শুরুটাই খিটকেল বুড়োর সাথে দেখা। তাকে কোনোওমতে ট্যাকল করে এগোতে গিয়ে আটকায় নেহার মা’র কাছে। ভদ্রমহিলা দৌড়ন পার্কে, শরীর সচেতন ও সজাগ। এই সজাগ মানে চারধারে নজর অর্থ কে কখন তার দিকে চাহনি দিয়েছে তা বেশ খেয়াল রাখেন।  শরীরের মাপ যা তাতে পুরুষদের দোষ দেয় কিকরে - কেন যে মানুষ একমুখী প্রেমে বিশ্বাস করে!! পলিগ্যামি সোসাইটির দিকে পিছু ফিরতে ইচ্ছে করে অলীকের।  কোনোওমতে নেহা’র মাকে পেরিয়ে সংযমের চূড়ান্ত পরীক্ষা দেয়, পাশ কাটিয়ে হাঁফ ছাড়ে।  ডিপার্টমেন্টাল স্টোরটার গায়ে আটকানো নানান লোভনীয় স্টিকার তার সংযমের আবারও পরীক্ষা নেবে।  উজ্জল আলোতে সাজানো দোকানগুলোতে ঢুকতে বেশ ভালই লাগে, নানান জিনিসপত্র নাড়াচাড়া করতে গিয়ে বুঝতে পারেনা কখন যেন পকেট দেবতা হালকা হয়েছেন। আজও তার ব্যতিক্রম হবে না বলেই মনে হয় যদিও অলীক আজ মন বেঁধে এসেছে চাল-ডাল-মুড়ি। ব্যস! আর কিছু নয়।
ঢুকেই চালের অর্ডার দেয়, ডাল নিতে ভেতর দিকে এগোয়। পাশের তাকে রাখা ক্রিম বিস্কিটের প্যাক বাচ্চা ছেলের মতই তাকে টানে। প্যাকেটে টান দেবার আগেই পাশে হাজির ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের বয়, হাতে বাস্কেট।  মুচকি হেসে হাত বাড়ায় অলীক। ওপাশের পাস্তা-নুড্ল-এর চকমকে প্যাকেট ছাড়ে কিকরে। অর্গানিক টি-এর প্যাকেট ঘরে আছে তবুও কিনতে সাধ জাগে। হঠাৎ মনে পড়ে কর্পূর নেবার কথা। নিতে গিয়ে চোখে পড়ে নানান সুগন্ধীর দিকে। কেউ গোলাপ, কেউ জুঁই, কেউবা ল্যাভেন্ডারের গন্ধী নিয়ে হাজির। অগত্যা রুম ফ্রেসনার! আরোও একটু পা বাড়াতেই নানান সস ও স্প্রেড। জিভে শুধু নয় চোখেও জল আসে প্যাকেজিং দেখে।  চোখের খিদে। হাত বাড়ায় সেদিকেও 
এধার-সেধার পেরিয়ে বাস্কেট ভর্তি করে বিলিং কাউন্টারের সামনে দাড়ায় - বেচারা অলীক !
হিসেব টিসেব সেরে স্টোর মালিক বলেন - স্যার - ২৮৫০ টাকা।
অগত্যা ক্রেডিট কার্ড। মধ্যবিত্তের বিত্ত।
কাঁচের দরজা ঠেলে বেরোনোর সময় স্টোর মালিক ডাকেন - স্যার।
ঘুরে তাকাতেই একগাল হাসি - স্যার একটা গিফট রয়েছে আপনার জন্য। বেবি ওয়েল ।
অলীক ফিরতি পথে ভাবতে থাকে তার স্বপ্নের কথা - বড় কাতলা মাছের বদলে বেবি ওয়েল ! ধন্য স্বপ্ন।  

Popular Posts