ভোঁদুর আত্মচরিত - ২

দ্বিতীয় পর্বঃ

এক রোমান স্থাপত্যের সিগনেচার বহনকারী বৈভবের ও ঐশ্বর্যের প্রকাশের মাঝে ভোঁদু বুঁদ হয়েছিল বেশ কিছুদিন। বড় সোফা বড় কাফে বড় আরোও কত কি তার হিসেব পরে হবে। আপাতত এক বড় ভোঁদুর কথায় আসা যাক। তেনার মেজাজ ভারী। দরকারে তাকান অন্যথা পাশ দিয়ে পেরোলেও সোজা তাকান। যেন চেনেনই না। আজব কান্ড!

ভোঁদু কাজে যোগ দেবার পরেই এক মহাপন্ডিতের সাথে যোগাযোগ করেন। তার উত্তর - আরে এতো ছেঁড়া কাঁথা থেকে লাখ টাকা। ভোঁদুও খুশি, ভোঁদুর চৌহুদ্দির সকলেই খুশি।  কিনা তিনি বড় স্থাপত্যের বড় ভোঁদুর সাথে যুক্ত।

নতুন কিছু জিনিস ভোঁদুর সাথে যুক্ত হলো এইসময়। গিন্নীমার ধন, বাথরুম - জল ইত্যাদি ইত্যাদি... ভোঁদুকে এক বন্ধু বলেও দিল A for Apple, B for Book, C for ..... বোকার হিন্দি শব্দটা বসিয়ে নিলেই চলবে।  ভোঁদু বুঝেও বোঝেনা। মন মানে না। বাথরুমে জল না থাকতেই পারে তাতে কি? পলিথিনের প্যাকেট সাথে নিয়ে গেলেই হলো।

একবারতো এক দ্বিগ্ব্জতো কবিতায় লিখে ফেললো। ইংরেজিতে লেখাতো তাই বোধহয় ভোঁদুর পড়া হয়ে ওঠেনি। তার কাছে নতুন ভাষা।

তার কাছেই প্রথম ভোঁদু শিখল কিকরে ডমিনেট করা যায় - না তাকিয়ে না দেখে পেরিয়ে গেলেই হলো

আপাতত এইটুকুই থাক। আবার পরের পর্বে।



" সাথে থাকবেন, নইলে পিছিয়ে পড়বেন।" 

Comments

Popular Posts