"ভালবাসায় দন্দ্ব নেই, জ্বালা আছে"

If you want to live, die in love;

Die in love if you want to remain alive.

                                Jalaluddin Rumi (1207-1273)
                                Sufi Mystic And Poet Born in Tajikistan


গতকালের কেনা একটি বইএর কোটেশান।  ভালবাসার বই।  শুধুই কোটেশান-এ ভরা।  ওপরের লাইন দুটি তারই থেকে নেওয়া।  রুমি অনেকেরই পরিচিত কবি, তার সম্পর্কে কিছু বলা আমার উদ্দেশ্য নয়।  লাইন দুটি পড়ে যা মনে হয়েছিল তাৎক্ষনিক তারই প্রকাশ এই লেখা।

খুব সহজ কথা...

যদি বাঁচতে চাও, ভালবাসায় মর......  ভালবাসায় মর যদি তুমি বাঁচতে চাও।

হ্যাঁ রুমি ঠিক তাই ... গোটা জীবন দিয়ে বুঝতে হয় ভালবাসা কি?  কারোও আটে বা কারোও আশিতে! 

মনে পড়ে প্রথম ভালবাসার কথা, বিচ্ছেদের কথা, কান্নার কথা।  প্রথম বোঝা আমরা জীবনে একা, ভালবেসেও একা।  একেক সময় বোধ হয় দুইয়ে মিলে এক তা ঠিক, কিন্তু ভালবাসাতো দুই নয় সে তো এক।  সকলের মাঝে এক।  ভাগতো হয়েছে আমাদের।  ভাল-তো-বাসিনি নিজেকে, সবাইকে, সবকিছুকে!

হারানোর ভয় থেকেই ভালবাসা, না ভালবাসা থেকে হারানোর ভয় বলা মুষ্কিল।  এযেন মুরগি আগে না ডিম!  ছেলেবেলার প্রথম ভালবাসা খেলা কখন হারিয়ে গেছে নিজেই বুঝতে পারিনি।  আর একটু বড় হলে মেয়ে দেখে আনন্দ ও পাড়া বেড়ানো।  সাইকেলে চেপে পাড়া বেড়ানো আরে নানা স্বপ্নের বুনন!  প্রথম ট্রেনে চেপে বেড়াতে যাওয়া সকলের সাথে।  সবই হারিয়ে যায় সময়ের সাথে।  প্রথম হোলি তে মেয়ের শরীরে রং মাখানোর আনন্দ!  অজানাকে জানার, পাওয়ার আনন্দ!  থাকে না।  হারিয়ে যায়।  নতুন কিছু এসে ভাসিয়ে দেয় পুরোনোকে।  একসময় মনে বিশ্বাস জাগে কমিউনিজ্ম শব্দটির ওপর!  বিশ্বটাকেই বদলে দেব এই প্রত্যয় জাগে।  বিশ্ব নয় বদলে যায় বিশ্বাসটাই!  বেঁচে থাকে না সময়ের সাথে।  আসলে বিশ্বাসের সাথে বেঁচে থাকাই প্রাণের প্রকাশ!

তাহলে কি রুমি ভুল???

তাই যদি হয় তাহলে এখনোও লিখ্ছি কেন?  প্রাণের তাগিদে!  নাহ, এ হল ভালবাসার তাগিদ।  ভালবাসার ছোঁয়া।  যদি এমন কোনোও দিন হয় কি করছি জানি না?  কেন করছি জানি না?  কি হবে জানি না?  

উত্তর সহজ আপনার সময় হয়েছে।  ভালবাসার তাগিদে বাঁচার...

ছেলেবেলা থেকেই চুপ্চাপ হওয়ার কারনে ভুল বোঝার প্রকোপে বারবার পড়েছি।  ভালবাসার ভাণের ভুল বোঝা ভার।  মান্ধাতা আমলের ছেলে-মেয়ের ভালবাসার বাইরে বেরোনোর শিক্ষা আমরা ঠিক্ঠাক পাইনা।   ফল মিথ্যে জটিলতার মাঝে দিন কাটানো।

দিনকয়েক আগে এক বন্ধুর সাথে কথায় জানা গেল সে দন্দ্বের বাইরে থাকা শিখেছে।  মনেমনে তারিফ করলাম।  যাক কেউতো দন্দ্বের বাইরে আছে!  ঠিক একদিন পর ছোট্ট একটি প্রফেশনাল আঁচড় দন্দ্বে ফিরিয়ে আনল তাকে।  একসময় যেচে কথা বলা বন্ধু কথা বন্ধ করে বসে রইল!

অবাক দন্দ্বের বাইরে থাকা!!!

বলতে ইচ্ছে করল বন্ধুকে "ভালবাসায় দন্দ্ব নেই, জ্বালা আছে"  সেই জ্বালায় বাঁচিয়ে রাখে সবাইকে, এমনকি রুমিকেও!   




Popular Posts