গুরু পূর্ণিমা

নানান সময় নানান কিছু মনে আসে - এই যেমন আজ গুরু পূর্ণিমার দিনে বাবার কথা ভীষণ মনে পড়ছে। বাবা অর্থাৎ গুরু। বলে নাকি গুরু সকল সময় সাথে থাকে - কজন বোঝে !  এই দেশের সবকিছুই রূপক হিসাবে ব্যবহৃত হয়েছে, গুরু পূর্ণিমাও তাই। 

এই দিন থেকে ছমাস সূর্য উত্তরায়ন থেকে দক্ষিণায়নের পথে যায়। গুরু অর্থাৎ আলো বা এনলাইটেনমেন্ট এবং পূর্ণিমা অর্থে মনের পূর্ণাবস্থা।  এই দিনে সূর্য অর্থ সত্তা ও পূর্ণিমা অর্থ পূর্ণ মন গুরুর কাছ থেকে আশীর্বাদ স্বরূপ আলো উপহার পায়। তাই এটি বিশেষ দিন।  আগামী ছমাস সাধনার সময় - নিজস্ব প্রকৃতি অনুযায়ী। পরের ছমাস অর্থে উত্তরায়নের শুরু থেকে দক্ষিণায়নের শুরু অবধি গুরুর কাছ থেকে আশীর্বাদ প্রাপ্তির সময়। 

এবার আসি অন্য কথায়। সকলে গুরু অর্থে ফিজিক্যাল গুরুকেই ধরে বসে থাকেন। কেউ যদি শরীরে গুরুকে নাও পেয়ে থাকেন তাহলে এই প্রকৃতি এই বিশ্ব গুরু হিসাবেই তার সাথে তার পাশে থেকে আলো দিয়ে যায়। তাই গুরু পূর্ণিমার দিন মন যা চায় তাই প্রার্থণা করতে হয় ও সাথে থাকে তার প্রেরণা - গুরুশক্তির প্রেরণা - তিনিই আলো জ্বালিয়ে পথ পার করেন , দক্ষিণায়নের পথ থেকে উত্তরায়নের উত্তরণের পথে পা বাড়াই আমরা। 
Post a Comment

Popular Posts