Skip to main content

জুড়োলো ভাই জুড়োলো, কবির পরাণ জুড়োলো

লেখাগুলো পালটে গেল
  রব শুধুই গেল-গেল
  শালিক পাখির হলো বিচার
  বট বাবাজির আজব কারবার।
  নিকোনো দাওয়ায় বসে বেকুফ
  দিনান্তে চলে শুধুই ফেবুক
  এধার গেলে ওধার আসে
  বিচার বাবা হাজির আবাসে
  হুকুম তলব করতে হবে
  বেকুফ গেল আসমানেতে
  বানিজ্য যার তারই সাজে
  সময় আজ বদল মাগে
  বদল বদল বদল চাই
  চলরে এবার মাদল বাজাই
  শুনে রাজা বেজায় খাপ্পা
  রাজ্য জুড়ে লারেলাপ্পা
  ধর্ম কর্ম চুলোয় যাক
  বলেন সবাই বালাই ষাঠ
  বিচার আচার উঠলো লাটে
  শালিক পাখি মরলো ঠাটে।
  শেষ করি ভাই এই বলে
  যদিও যাবে সবই ভুলে - 
  নটে গাছটি মুড়োলো
  কবির পরাণ জুড়ালো। 

Popular posts from this blog

সিনেমা কি ও কেন?

দেবাশিস্ ভট্টাচার্য্য লেখাটা শুরু করার আগে একটা সাধারণ মাপের মানুষের বিষয়টির ওপর লেখার ধৃষ্টতার জন্য ক্ষমা চেয়ে নিই। আসলে বিষয়টা এতটাই সুক্ষ যে এর ব্যাখ্যা প্রায় দূরুহ ব্যাপার। তবু শুরু যখন করেছি, শেষ তো করতেই হবে। সিনেমা শব্দের উৎপত্তি গ্রীক শব্দ  ‘kinema’ শব্দের থেকে। পুরো বিষয়টির নাম সিনেম্যাটিকস্‌। স্বাভাবিকভাবেই এর সূত্র পাই kinematics শব্দ হতে। Kinematics শব্দটির আভিধানিক অর্থ- a branch of dynamics that deals with aspects of motion apart from considerations of mass and force.অর্থাৎ বিষয়টি গতিবিদ্যা সমন্ধীয়। আরোও একটু ভেঙে বলতে গেলে বলা যায়- ভর ও বলকে ছাড়াও বেগটাকেও গুরুত্ত্ব আরোপ করা হয়েছে। এখানে বেগ অর্থে মানসিক অথবা শারীরবৃত্তীয় বেগ-এর কথাই বলা হয়েছে।দেখা যায়, রিদ্‌মিক মিউজিক শুনলে হাত, পা, বা শরীরের মুভমেন্ট।ঠিক একইভাবে সিনেমার বিভিন্ন অংশ মানসিক ও শারীরিক গতির সঞ্চালন করে। একটা উদাহরণ বোধহয় বিষয়টিকে অনেক বেশি পরিস্কার করবে।ধরা যাক- বিশ্বকাপে মারাদোনার ইংল্যান্ড-এর বিরুদ্ধে করা বিখ্যাত গোলটার কথা। একটা ছোট্ট পাস, সেখান থেকে এক এক করে ছ’জন কে পাস কাটিয়ে জালে বল পৌ…

খুশি তো ???

আর লাগছে না
মারো মারো আরোও একটু
বোধটাই হারিয়ে গেছে
চুরি করেছি.. 
শাস্তি পাবো না?

না গো কান্না না
হাসি গো হাসি
ভীষণ ব্যাথা লাগছিল
তাই হাসছিলাম...

শক দিলি তখনও হেসেছি
বেঁধে দিলি তখনও হেসেছি
হাসতে-হাসতে জল চাইলাম
নোনা জলের স্বাদ পেলাম। 

এখন আর হাসি না
ধড়ে প্রাণটাই নেই গো আর
বেরিয়ে গেছে..
তোমরা খুশি তো ???

জাগো কেলোর মা জাগো!

জাগোগোরি, গোরিজাগো……বহুলপ্রচারিতএকগান… অনেকেরইপ্রিয়।  লেখাটিরশুরুতেএইগানটিইমাথায়এসেছিলতাইরাখলামশুরুতে।
বেশলাগছেভোটভোটখেলারপ্রচারদেখতে।  ধন্যদেশ-কাল-শাসনওআমরা!  বেশমজাইলাগেবেশকিছুবহুলপ্রচারিতচ্যানেলেরবিতর্কেরনামেজঙ্গলের ঝগড়া।  কখনওকখনওমনেহয়আমরাসকলেইবোধহয়জঙ্গলীরই রুপান্তর।  তারইমাঝেশিক্ষারভড়ংপ্রকাশকরে বসি।  যিনি বিতর্কের কর্তা তিনিও কি ঠিক?